Home / Trend Line Breakup

Trend Line Breakup

⇒ ট্রেন্ড লাইন ব্রেকআপ

⇒ কীভাবে বুঝবো যে ট্রেন্ডলাইন ব্রেক করেছে?

⇒ ট্রেন্ড ট্রেডিঙে রিস্ক ম্যানেজমেন্ট

⇒ সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স

⇒ সেকেন্ডারি সূচক থেকে নিশ্চিতকরণ

⇒ একাধিক সময়সীমার মধ্যে ট্রেন্ড খোঁজা

 

ট্রেন্ড লাইন ব্রেকআপ


একটা ট্রেন্ড কিন্তু একসময় তার শক্তি হারিয়ে দুর্বল হয়ে যায়, তখন সে রিভার্স শুরু করে। তাই ট্রেন্ড এর শেষ দিকে আর ট্রেডে না থাকাই ভাল। ট্রেন্ড কখন রিভার্স করবে সেটা বলা মুশকিল। কারণ মার্কেট আগামী ৫ মিনিট পর কোথায় যাবে এটাতো আমরা কেউই বলতে পারিনা। সেটা সম্ভবও না।
তাই অনেকে অনেক সিস্টেম এপ্লাই করে কিছু কনফার্মেশন পেয়ে সেটা বুঝে যায়।
মনে করেন, মার্কেট একটা নির্দিষ্ট গতিতে চলার পর তার ট্রেন্ড লাইনে এসে স্থির হয়ে আছে; এখন দুটি ব্যাপার ঘটতে পারে। এটা আবার তার নির্দিষ্ট ট্রেন্ড এ চলা শুরু করতে পারে অথবা পুলব্যাক করতে পারে। এখানে দুটিরই সম্ভাবনা আছে। এক্ষেত্রে আপনাকে হিস্টোরি দেখে জাষ্টিফাই করতে হবে এটা কোন আগের স্ট্রং সাপোর্ট বা রেজিস্টান্স এ আছে কিনা। যদি থাকে তাহলে সেটা ব্রেক করার সম্ভাবনাই বেশি। হয়ত ট্রেন্ড শেষ হয়ে এবার রিভার্সাল শুরু হতে যাচ্ছে। সুতরাং এই জায়গায় সতর্কতা অনেক দরকার।
একটা কথা মনে রাখবেন, ফরেক্স এ নিজের একটা সিস্টেম বানাতেই হবে। সেটাকে দিন দিন ডেভেলপ করতেই শুধু ট্রেন্ডলাইন আর সাপোর্ট রেজিস্টান্স দিয়ে একটি সফল সিস্টেম বানাতে পারেন।
নতুন যারা মার্কেটে আসে তারা শিখতে চায়না। তারা এটা বুঝেনা যে, এই মার্কেট এর শিখার কোন বিকল্প নেই। আমাদের প্রথম অবস্থায় বাংলাভাষায় কোন সুযোগইতো ছিলনা শেখার। বর্তমানে কত সাইট আছে বাংলায়। অনেক ট্রেডারই তাদের ট্রেডিং নলেজ শেয়ার করছে। মানুষের মনমানসিকতা দিন দিন উদার হচ্ছে। আমরা জানার অভাবে লস করেছি। লস করে শিখেছি। আপনারা কেন লস করবেন এমন সুবর্ণ সময়ে?
জাস্ট সিম্পল একটা সিস্টেমে চলেন। নিত্য নতুন স্ট্রাটেজি আর সিস্টেম বানাবেন না। একটাকেই ডেভেলপ করেন। মানি ম্যানেজমেন্ট মানেন। সফল হবেনই।
দিনের নির্দিষ্ট একটা সময় টার্মিনালের সামনে থাকেন। বাকি সময় শুধু স্টাডি করেন। অনলাইনে হাজার হাজার সাইট আছে। ইউটিউবে ভিডিও টিউটোরিয়াল এর অভাব নেই।

কীভাবে বুঝবো যে ট্রেন্ডলাইন ব্রেক করেছে?

আপট্রেন্ডের সময় যদি কারেন্সি পেয়ার সাপোর্ট লাইনের নিচে যায়, এটা ভালো হয় যদি নিম্নোক্ত যেকোনো একটি অবস্থা দ্বারা তা নিশ্চিত করা যায়ঃ
* প্রাইস ব্রেক হওয়া সাপোর্টের ১% নিচে ক্লোজ হয়েছে।
* ভলিউম- যদি ডাটা উপলব্ধ থাকে – গড়ের বেশী হয়ে থাকে।
* পরবর্তী ক্যান্ডেলগুলো লাইনের নিচে ক্লোজ হয়েছে।

নিচের দিকে ব্রেকের পরে ইন্ট্রাডে চার্টে প্রাইস আবার ব্রেক হওয়া লাইনে পুনর্মিলিত হয়, যা এখন সফলভাবে রেজিস্ট্যান্সের ভূমিকা পালন করছে। এধরনের পুনর্মিলন শক্তিশালী সেল সিগন্যাল প্রদান করে যদি এটা গড় ভলিউমের কমের সময়সীমার মধ্যে ফর্ম করে থাকে।
নিচের দিকের ব্রেকের আকার গড় ATR এর চেয়ে বেশী হয়ে থাকে। ATR ইনডিকেটর পূর্ববর্তী নির্দিষ্ট ক্যান্ডেলের ভিত্তিতে ভলাটিলিটি পরিমাপ করে।

ট্রেন্ড ট্রেডিঙে রিস্ক ম্যানেজমেন্ট

ট্রেন্ড ট্রেডিং এই ধারনায় করা হয় যে, প্রাইস নির্দিষ্ট এক ডায়রেকশনে মুভ করবে। সেটা যদি কাজ না করে, তাহলে সেই ট্রেড ধরে রাখার কোন মানে হয় না, তাই ট্রেন্ড ট্রেডাররা সাধারণত টাইট (অল্প) স্টপ লস অর্ডার ব্যবহার করে থাকে।
*আপনি স্টপ লসকে দ্রুত ব্রেকইভেনে সরিয়ে নিতে পারেন।
*আপনি স্কেলিং ইন (প্রথমের দিকে) এবং স্কেলিং আউট (ট্রেন্ডের শেষের দিকে) ব্যবহার করতে পারেন।
*রিস্ক/রিওয়ার্ড রেশিও ১:২ থেকে শুরু হওয়া উচিত।
ট্রেন্ড ট্রেডিঙের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কিছু পরামর্শঃ
– ট্রেন্ডলাইন ড্র করবেন।
– একাধিক টাইমফ্রেমে ট্রেন্ড অ্যানালাইজ করবেন।
– মার্কেটের ওভারবট/ওভারসোল্ড যাচাই করবেন।
– পজিশন ওপেন করতে তাড়াহুড়া করবেন না। সঠিক এন্ট্রির সময়ের জন্য অপেক্ষা করুন (ওপরে “কাজকর্মের প্রক্রিয়া” সেকশনটি দেখুন)।
– প্যাটার্ন খুঁজুন – চার্ট, ক্যান্ডেলস্টিক।
– টেক প্রফিট অর্ডার পরিবর্তন করবেন না।
– চার্টের হিস্টোরির ভিত্তিতে ট্রেইলিং স্টপ ব্যবহার করুন।

সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স

সাপোর্ট হচ্ছে সেই লেভেল যেখানে নিচে নামা প্রাইসের থামার অথবা সেখান থেকে রিভার্স করার সম্ভাবনা থাকে। এর মানে হচ্ছে যে প্রাইসের এই লেভেলে ভাঙ্গার চেয়ে “বাউন্স” করার সম্ভাবনা বেশী থাকে। কিন্তু, একবার যদি প্রাইস এই লেভেল ভেঙ্গে নিচে যায়, তাহলে বেশী সম্ভাবনা থাকে যে প্রাইস আরও পড়বে এবং আরেকটি সাপোর্ট খুঁজবে।
রেজিস্ট্যান্স হচ্ছে সেই লেভেল যেখানে বাড়তি প্রাইসের থামার অথবা সেখান থেকে রিভার্স করার সম্ভাবনা থাকে। এর মানে হচ্ছে যে প্রাইসের এই লেভেলে ভাঙ্গার চেয়ে বাউন্স করার সম্ভাবনা বেশী থাকে। কিন্তু, একবার যদি প্রাইস এই লেভেল ভেঙ্গে ওপরে যায়, তাহলে বেশী সম্ভাবনা থাকে যে প্রাইস আরও বাড়বে এবং আরেকটি রেজিস্ট্যান্স খুঁজবে।
সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স প্রায়ই তৈরি হয়ঃ
– পূর্বের হাই এবং/অথবা লো’তে
– ট্রেন্ডলাইন
– মুভিং এভারেজ
– ফিবোনাচ্চি লেভেল ইত্যাদি।

সেকেন্ডারি সূচক থেকে নিশ্চিতকরণ


উপরের চার্টটি দেখে, আমরা দেখতে পারি স্টকাস্টিক অসিলেটর আমাদের একটি সূত্র দিয়েছিল যে মার্কেট বিপরীত দিকে যাচ্ছে। স্টকাস্টিকগুলো ৮০ লেভেলের উপরে ছিল এবং নিচের দিকে বাঁক নিচ্ছে, যা মূল্য হ্রাসের সম্ভাবনার সূচক।
তাই ৩৮.২% রিট্রেসমেন্ট লেভেল এবং স্টকাস্টিকগুলো বিক্রির সংকেত দিয়ে মূল্য বৃদ্ধি করে একটি বিক্রির অর্ডার করার জন্য আমরা একটি ভাল কেস তৈরি করতে শুরু করছি বা ট্রেডিং শিল্পে একে বলা হচ্ছে ‘শর্ট যাচ্ছে’।

একাধিক সময়সীমার মধ্যে ট্রেন্ড খোঁজা

একজন ভাল ট্রেডার খানিকটা শার্লক হোমসের মত, যিনি একজন গোয়েন্দা, তিনি একাধিক সূত্রের উপর ভিত্তি করে একটি মামলা গড়ে তোলেন। আমরা একটি ছোট পজিশন গ্রহণ করার জন্য দুটি ভাল সূত্র উন্মোচিত করেছি, কিন্তু আমাদের কাজ এখনও সম্পন্ন হয় নি।

বড় ছবির জন্য এবং উপরের দৈনিক চার্টটি দেখার জন্য জুম করুন, আমরা দেখতে পাচ্ছি যে এই সময়সীমাতেও ট্রেন্ডটি ব্যাপকভাবে নিম্নগামী।
এই ৩৮.২% ফিবনাচি রিট্রেসমেন্ট লেভেলে কারেন্সি বিক্রি করার ক্ষেত্রে এটি পরে সমর্থন করে।
ছোট পজিশনের জন্য (বিক্রির ট্রেডগুলো) আমরা দেখতে চাই যে একাধিক সময়সীমা জুড়ে মার্কেট ডাউনট্রেন্ডে রয়েছে। দীর্ঘ পজিশনের জন্য (কেনার ট্রেডগুলো) আমরা দেখতে চাই যে একাধিক সময় সীমা জুড়ে মার্কেট আপট্রেন্ডে রয়েছে।
চার ঘণ্টার চার্টে ফিবনাচি লেভেলের বাউন্স অফ অপেক্ষাকৃত বড় ছিল। আর ৩৮.২% লেভেল ৯১১৯-এ ছিল এবং ৮১৯০-নীচে নেমে গিয়ে মূল্য বিক্রি হয়ে যায়, ৳৯০০-এরও বেশী সরে গিয়ে।
এটি হল একটি ফরেক্স কৌশল যা বিভিন্ন সময়সীমার মধ্যে প্রয়োগ করা যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, আমাদের উদাহরণ হিসাবে ব্যবহার করা চার ঘণ্টার একটি চার্টের পরিবর্তে আপনি একটি ৩০-মিনিটের চার্টের ওপরে অনুরূপ সেটআপগুলো দেখতে পারেন।
মনে রাখবেন যে, কম সময়সীমাতে আপনি আরো সংকেত পাবেন কিন্তু তারা কম নির্ভরযোগ্য হবে।
বিপরীতভাবে, দীর্ঘমেয়াদী সময়সীমাতে আপনি কম সংকেত পাবেন কিন্তু তারা আরো নির্ভরযোগ্য হবে।

মুনাফা গ্রহণ এবং ক্ষতির লেভেল থামানো
একটি ভাল চলতি নিয়ম হল আপনার ঝুঁকির কমপক্ষে তিনগুণ মুনাফার লক্ষ্য নির্ধারণ করা। ফিবনাচি রিট্রেসমেন্টস্ সহায়তা এবং প্রতিরোধের ক্ষেত্রগুলির হিসেব করতে সহায়তা করবে, তবে একে অন্যান্য সূচক এবং ফরেক্স স্ট্র্যাটেজিগুলির সাথে মিশ্রিত করে, আপনি এই টুলের সর্বোত্তম ব্যবহার পেতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি একটি ট্রেন্ড এবং মূল্য বিপর্যয় সংজ্ঞায়িত করার জন্য স্টকাস্টিক অসিলেটরের সুবিধা গ্রহণ করতে পারেন। ফিবনাচি রিট্রেসমেন্টগুলো হল একটি ট্রেন্ড-অনুসরণকারী উপকরণ, এবং একাধিক টাইমফ্রেম জুড়ে ট্রেন্ড দেখার ফলে আরো সঠিক পূর্বাভাস পাওয়া যাবে। ফিবনাচি রিট্রেসমেন্টস্ একটি দারুণ নিশ্চিতকরণ টুল তৈরী করে এবং এই নিবন্ধে উপস্থাপিত কৌশলগুলোর সাথে মিলে উচ্চ সম্ভাবনাময় ট্রেডিং নিশ্চিত করতে পারে।

Language »