Home / Bid-Ask & Spread

Bid-Ask & Spread

বিড এবং আসক প্রাইস॥ স্প্রেড

What is bid and ask on Forex? যখন একজন ট্রেডার ফরেক্স মার্কেটে একটি চুক্তি করতে চাইবে তখন তাকে জানতে হবে মুদ্রা জোড়া এবং তার মূল্য সম্পর্কে। ফরেক্স মার্কেটে মুদ্রা জোড়া দুইটি প্রতীক দ্বারা উল্লেখ করা হয়। প্রতীকগুলোর একটি হলো আস্ক এবং আরেকটি হলো বিড।
Ask and Bid price of currency pair: আস্ক-মূল্য হলো জোড়ার কোটেশন এর মধ্যে সর্বোচ্চ মূল্য, এই মূল্যে ট্রেডার মুদ্রা ক্রয় করবে, যা মুদ্রা জোড়ার সমাহারের প্রথম অক্ষর। এই ক্ষেত্রে, ব্যবসায়ীরা সমাহার দ্বিতীয় মুদ্রা বিক্রয় করবে।
বিড-মূল্য হলো মুদ্রা জোড়ার কোটেশন এর মধ্যে সর্বনিম্ন মূল্য, এই মূল্যে ট্রেডার মুদ্রা বিক্রয় করে, যা মুদ্রা জোড়ার সমাহারের দ্বিতীয় অক্ষর। এই ক্ষেত্রে, ব্যবসায়ীরা সমাহারের দ্বিতীয় মুদ্রা ক্রয় করবে।
অন্যভাবে বলা যায়, ফরেক্সে ২ ধরনের কারেন্সির প্রাইস রয়েছে আর তা হলো বিড এবং আসক। যে প্রাইসে আমরা কোন পেয়ার বাই করি তাকে আসক প্রাইস বলা হয়। এটা সর্বদা মার্কেটের প্রাইসের চেয়ে একটু বেশী হবে। যে প্রাইসে আমরা কোন পেয়ার সেল করি তাকে বিড প্রাইস বলা হয়। এটা সর্বদা মার্কেট প্রাইসের চেয়ে একটু কম থাকে।
যে প্রাইসটি আমরা সর্বদা চার্টে দেখে থাকি সেটা হলো বিড প্রাইস। পরবর্তীতে, আমরা দেখবো যে ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মে কীভাবে আসক প্রাইস দেখতে হয়। আসক প্রাইস সর্বদা বিড প্রাইসের চেয়ে কয়েক পিপ বেশী থাকে। এই দুই প্রাইসের পার্থক্যকে বলা হয় স্প্রেড। স্প্রেড হচ্ছে সেই কমিশন যা আমরা ব্রোকারকে প্রতিটি লেনদেনের জন্য প্রদান করে থাকি। এধরনের জিনিস হয়তো আপনি ব্যাংক এক্সচেঞ্জারে দেখে থাকতে পারেনঃ সেলার এবং বায়ারদের জন্য রেট সর্বদা আলাদা থাকে।
স্প্রেড = আসক- বিড
উদাহরণসরূপ, EUR/USD কারেন্সি পেয়ারের বিড/আসক রেট হচ্ছে ১.১২৫০/১.১২৫১। আপনি সর্বদা আসক প্রাইসে বেশী দাম দিয়ে ১.১২৫১ এ বাই করবেন এবং কম দাম দিয়ে ১.১২৫০ তে সেল করবেন। এখানে স্প্রেড ১ পিপ দেখা যাচ্ছে।
কারেন্সি পেয়ার যতো বেশী জনপ্রিয় হবে, তার স্প্রেড ততো কম হবে। যেমন, EUR/USD এর স্প্রেড সাধারনত খুব কম থাকে অথবা, ট্রেডারদের ভাষায়, টাইট থাকে। লক্ষ্য করবেন যে, ফরেক্সের স্প্রেড স্টক অথবা অপশন মার্কেটের তুলনায় অতি তুচ্ছ একটি জিনিস। যেহেতু স্প্রেড পিপ হিসেবে কোট করা হয়, ট্রেডাররা সর্বদা প্রতিটি ট্রেডের খরচ ১ পিপের ভ্যালুকে গুণ দিয়ে গণনা করে বের করতে পারে।

বিনিময় হারে তারতম্য ঘটে চাহিদা-যোগানের তুলনামূলক ক্রিয়ায়: মুদ্রার মান সাধারণত বৃদ্ধি পায় যখনি তার জন্য চাহিদা বেশি হয় যোগানের থেকে এবং কমে যায় যখন চাহিদা কমে যায় যোগানের চাইতে। এছাড়াও, দাম ওঠা-পড়া করে অর্থনৈতিক, সামাজিক এবং রাজনৈতিক ঘটনা-র প্রতিক্রিয়াতে যা ঘটে ২৪-ঘণ্টার ট্রেডিং দিনের মধ্যে। সংশ্লিষ্ট দেশগুলির রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং অর্থনৈতিক কার্যকলাপ-এর প্রভূত প্রভাবও পড়ে থাকে মুদ্রার দামে উপরে।

Language »