Home / Article / ট্রেডিং মনস্তত্ত্ব

ট্রেডিং মনস্তত্ত্ব


ট্রেডিং এ কাজের চেয়ে মনস্তাত্ত্বিক ব্যাপারটাই বেশি, যেটার উপর ফরেক্স বাজারে আপনার সফলতা অথবা ব্যর্থতা নির্ভর করে। যদি আপনি একটি পদ্ধতিগত ট্রেডিংএ অভ্যস্ত হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে এটা আপনাকে ট্রেডিংএ একটি সিদ্ধান্ত নিতে আদৌ আবেগী চাপ প্রয়োগ করবে না।
স্বতঃস্ফূর্তভাবে ফরেক্স ট্রেডারগণ মতামত দেয় যে, শুধুমাত্র আবেগের সম্পূর্ণ অনুপস্থিতিই আপনাকে উপকার করতে পারে। যদিও, ভয়, উদ্বেগ, লোভ, আশা, বিশ্বাস, অপমান এবং সুখ অবধারিতভাবে ট্রেডিংকালে আপনার সাথেই থাকে। প্রবল অনুভূতির মুহূর্তে আবেগকে দমন করা মানে আপনার ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়কে, প্রবণতাকে এবং পরিশেষে অন্তর্দৃষ্টিকে দমন করা।
এটা জানা আছে যে. আবেগগুলোও আমাদের মাঝে একটি তথ্যের প্রবাহ সরবরাহ করছে। আমরা এই তথ্যে মুগ্ধ হয়ে এটার অধীনেই কাজ করি। কিন্তু এটা আমাদেরকে দেয়া হয় আমাদের আবেগকে নিয়ন্ত্রণের জন্য এবং অপরের প্রতি মনোভাব পরিবর্তনের জন্য।

আবেগ নিয়ন্ত্রণের বেশ কিছু উপায় আছে:

প্রথমত, অন্য একটি বিষয়ে মনোনিবেশ করে আপনার আবেগগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। নিয়ম হিসাবে এই পদ্ধতিটা বেশ কার্যকরী। যে বিষয়টা আমাদের সচেতন দৃষ্টি আকর্ষণ করে, সেটায় আমাদের কাছে বাস্তবে পরিণত হয়। আপনি লোকসানে ভোগাকে মেনে নিতে পারেন অথবা বিপরীতে মুনাফা অর্জনের সুযোগ পেতে পারেন।
দ্বিতীয়ত, আপনার প্রত্যয় এবং বিশ্বাসের পরিবর্তিত অবস্থায়, আপনি আপনার আবেগগুলোকে পরিবর্তন করতে পারবেন। প্রতিটা বিশ্বাস যা আমরা আমাদের জীবনযাত্রায় মেনে চলি সেগুলো আমাদের নিকট, তথ্যসমুহকে হৃদয়াঙ্গম করার জন্য একপ্রকারের ছাকনির মত করে প্রভাবিত করে। আমাদের জীবনকালের সকল মূল্যবোধ সেগুলোর অর্থকে প্রভাবিত করে যেগুলোর সাথে আমরা, আমদের সচেতনতার মধ্যে পরিচিত হচ্ছি।
এবং পরিশেষে, আমাদের আবেগগুলোকে পরিবর্তন করার ৩য় পদ্ধতিটা হল মনস্তাত্ত্বিক পরিবর্তন। শ্বাসপ্রশ্বাসের পরিবর্তন, অনুকরণ, অঙ্গভঙ্গি, আমাদের কণ্ঠের স্বর এবং লয় এই সবকিছুরই একটা সরাসরি প্রভাব আছে আমাদের আবেগসংক্রান্ত অংশের উপর। এটা শুধুমাত্র একজন ফরেক্স ট্রেডারের ক্ষেত্রে নয় যেকোনো অবস্থানের একজন মানুষের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য।
গভীর মনোযোগ: মনোযোগের গভীরতা হল আমাদের আবেগী অবস্থার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদানগুলোর একটি। কারণ আপনাকে ফরেক্স ট্রেডিং এর প্রক্রিয়ায় যে বিষয়ে উল্লেখ করা হয় সেটা শুধুমাত্র একটা ঘটমান বাস্তবতার উপাদানেই পরিণত হয় না, একটি তথ্যসংক্রান্ত বাস্তবতার উপলব্ধিও বটে। সকল কার্যাবলীই ঘটনাসমূহকে প্রভাবিত করে এবং একইভাবে আপনার আবেগকেও প্রভাবিত করে। এই সবকিছুই আপনার আচরণ এবং সিদ্ধান্তসমূহ পরিণত করে আবেগী ব্যাপারে।
অগ্রাধিকারগুলোকে নির্দিষ্ট করা প্রয়োজনঃ আপনি কিসের জন্য অপেক্ষা করছেন? আপনি কি লোকসানের সম্ভাবনাকে স্বাগত জানাচ্ছেন, নাকি শুধুমাত্র অর্জনের আশা করছেন? যারা শুধুমাত্র লোকসান দেখে তারা সম্ভবত দীর্ঘক্ষণ বাজারে প্রবেশের ক্ষেত্রে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগে অথবা ট্রেড বাদ দিয়ে দিতে পারে। কিন্তু যারা এক সময় মার্কেটে প্রবেশের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তারা দ্রুত মুনাফা অর্জন করছে।

ট্রেডিং হল বিপরীতপক্ষসমূহের মাঝে ভারসাম্য তৈরি করার একটি প্রবণতা। একজন ট্রেডারের উচিৎ মুনাফা এবং ক্ষতির মধ্যে ভারসাম্য আনার চেষ্টা করা। একজন ট্রেডারের উচিৎ তার পদ্ধতিসমূহের সম্ভাবনা এবং বাজার থেকে সরবরাহকৃত তথ্যের উপর মনোযোগ দেয়া কারণ এটাই একমাত্র নির্ভুল ও যথাযথ উপায়।
মনস্তত্ত্ব : এটা প্রমাণিত যে আমাদের শরীর আমাদের আবেগগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করে এবং আবেগগুলো চিন্তাসমূহকে নিয়ন্ত্রণ করে। আবেগী অবস্থা পরিবর্তনের সবচেয়ে সহজ এবং সঠিক উপায় হল আপনার মনস্তাত্ত্বিক অর্থাৎ আপনার স্বর এবং নিশ্বাসের গভীরতা, কণ্ঠ অথবা আপনার অঙ্গভঙ্গির পরিবর্তন করা।
আপনার অঙ্গভঙ্গিতে মনোনিবেশ করুন, অর্থাৎ আপনি কিভাবে বসেন, নিঃশ্বাস নেন, কিভাবে আপনার মুখমণ্ডল, কাঁধ এবং সমস্ত শরীরের পেশিগুলো কাজকরে সেগুলো নিয়ন্ত্রণ করুন। যদি আপনি অস্বস্থিবোধ করেন, তবে শুধু আরামদায়ক ভাবেই বসা উচিৎ।
অবশ্যই সাধারণ মনস্তাত্ত্বিক দক্ষতা আপনার অনুভূতিকে নিয়ন্ত্রণের একটি কার্যকরী উপাদান।
আপনার আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করুন এবং এটা অবশ্যই আপনার ভেতর থেকে আরও সফল এক ট্রেডার তৈরি করবে।

Check Also

44 Forex Trading Tips

01. Time is your friend in the market, yet most traders make it into an …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Language »